SAT কি এবং কেন ?

7 Views No Comment

SAT = Scholastic Assessment Test, অধিকাংশ আমেরিকার ইউনিভার্সিটিতে অনার্স প্রোগ্রামে ভর্তি হতে হলে এই পরীক্ষাটা (অথবা ACT) দিতে হয়।

উচ্চশিক্ষার সোনার গেইট খোলার যাদুকাঠি হল SAT. সারা বিশ্বে সেরা বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজগুলোতে ভর্তির প্রতিযোগিতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। ভর্তিচ্ছু ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা জ্যামিতিক হারে বেড়ে চললে ও বাড়ছে না বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আসন সংখ্যা। এক জরীপে দেখা গেছে বিগত ১০ বছরে প্রতিটি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদনকারীর সংখ্যা বেড়েছে ৬০% এর বেশী অথচ, আইভি লীগ এবং স্ট্যানফোর্ড এর মত নামি দামী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে Acceptance এর হার কমতে কমতে ৫% এ নেমে এসেছে। ভর্তিযুদ্বের এই হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে টিকে থাকতে চাইলে দরকার সেরা হাতিয়ার। আর এই সেরা হাতিয়ার হল SAT তে ভাল একটি স্কোর।

উন্নত দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পড়তে গেলে গুনতে হবে অনেক টাকা। তাই, যে কেউ চাইলে এসব বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পড়তে পারে না। তবে, বৃত্তি বা আর্থিক অনুদান পেলে যে কেউ পড়তে পারে। কিন্তু এই বৃত্তি বা আর্থিক অনুদান পেতে ও লাগবে SAT. বিশ্ববিদ্যালয় যে বৃত্তি বা আর্থিক অনুদান দিয়ে থাকে তা পেতে গেলে অবশ্যই চাহিদামত ন্যূনতম SAT স্কোর লাগবে। উদাহরণস্বরুপ, আমেরিকাতে NATIONAL MERIT SCHOLARSHIP দেওয়া হয় PSAT এর স্কোর এর উপর ভিত্তি করে। NATIONAL COLLEGE ATHLETIC ASSOCIATION (NCAA) ও মিনিমাম SAT স্কোর ছাড়া বৃত্তি প্রদান করে না।তাছাড়া, প্রাইভেট কিংবা পাবলিক যে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন এনডাউমেন্ট তথা বিভিন্ন দাতাগোষ্টির অনুদানগুলো ও বন্টন করা হয় SAT স্কোর অনুযায়ী। এমনকি FLORIDA এবং MISSOURI বিশ্ববিদ্যালয়ে SAT স্কোর থাকলে Automatic Tuition Award পাওয়া যায়। সর্বোপরি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু ছাত্র ছাত্রীরা একেক দেশ এবং একেক শিক্ষার পরিবেশ থেকে আসে বিধায় সবাইকে এক কাতারে ফেলা যায় না। কেউ হয়ত High Achiever আবার কেউ Low Achiever. Background যেরকমই হোক না কেন, SAT স্কোর ই নির্ধারন করবে কার STANDARD কিরকম। ভাল স্কোর থাকলে খাটো করে দেখার সুযোগ আর থাকবে না। Discrimination ও হবে না।

HSC এর পরে ভার্সিটিতে ভর্তি পরীক্ষা দিতে যেতে হয়, বোঝেনই তো! এখন আমেরিকাতে গিয়ে হাজার হাজার ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে আসাটা কিছুটা মুশকিলের ব্যাপার। তাই, এখানে বসেই এই পরীক্ষাটা দিতে পারবেন। এরপর এই স্কোর ওদের কাছে পাঠিয়ে দিলেই ওরা বুঝতে পারবে, আপনার যোগ্যতা কতখানি…… এই নোটে আমরা SAT I (general test) নিয়ে আলোচনা করবো। SAT II (subject test)-ও আছে, অনেকে SAT I এর পাশাপাশি SAT II-ও চায়। তবে সেই গল্প আরেকদিন।

TEST STRUCTURE

৩টা সেকশন – Mathematics, Critical Reading, and Writing

1) Mathematics section

ম্যাথ সেকশনে আবার ৩টা সাব-সেকশন আছে – তার মধ্যে ২টা ২৫ মিনিট করে, আর একটা ২০ মিনিট এর। সায়েন্টিফিক ক্যালকুলেটর এর অনুমতি আছে। অতএব, বোঝা যাচ্ছে, মাঝে মাঝে বড় ক্যালকুলেশন করতে হতে পারে।

প্রথম সাব-সেকশন – ২৫ মিনিট দৈর্ঘ্যের একটা সাব-সেকশন শুধু Multiple Choice এ ভরা, ২০টা MCQ type question. টিক মেরে মেরে খেলা শেষ করতে হবে এখানে। মাগার……

শোনেন শোনেন দেশবাসী শোনেন দিয়া মন,
MCQ তে ভুল দাগাইলে নাম্বারের কর্তন

অতএব, ট্রিগার চাপার আগে সাবধান।

দ্বিতীয় সাব-সেকশন – আরেকটা ২৫ মিনিটের সেকশন। এখানে ৮টা MCQ, আর ১০টা GRID-IN টাইপ প্রশ্ন। গ্রিড-ইন আর কিছুই না, অংক নিয়ে সারাজীবন যা করে এসেছি, তাই… প্রশ্ন থাকবে, উত্তর লেখার জায়গা (ঘর বা গ্রিড) থাকবে, ওখানে উত্তর লিখে দিতে হবে। গ্রিড-ইন প্রশ্নে কুনো নেগেটিভ মার্কিং নাইক্কা !!

তৃতীয় সাব-সেকশন – মাত্র ২০ মিনিটের, ১৬টা প্রশ্ন, সবই MCQ

2) Critical Reading section

ম্যাথ এর মতই এখানেও ৩টা সাব-সেকশন – ২টা ২৫ মিনিট, একটা ২০ মিনিট এর। প্রত্যেক সেকশনেই Sentence Completion (শূন্যস্থান পূরণ) আর Reading Comprehension এর প্রশ্ন থাকে।

Sentence Completion – সোজা বাংলায়, শুন্যস্থান পূরণ। একটা গ্যাপ, পাঁচটা অপশন, একটা সঠিক উত্তর সিলেক্ট করতে হবে। মাঝে মাঝে একই লাইনে দুটো গ্যাপ, আর প্রতিটি অপশনের মধ্যে দুটো করে শব্দ থাকে। এখানে ভোকাবুলারির প্রয়োজনীয়তা খুব বেশি।

Reading Comprehension – Passage থাকবে, প্যাসেজ এর সাথে জড়িত প্রশ্ন থাকবে। আপনাকে বুঝে নিতে হবে প্যাসেজের main or supporting idea কি, কোন শব্দ দিয়ে আসলে কী বোঝাচ্ছে (এখানেও ভোকাবুলারির নলেজ লাগে), কোন লাইন দিয়ে লেখক কী বলতে চাইছেন, ইত্যাদি।

3) Writing section

রাইটিং এর অর্থ কেবল রাইটিং নয় । ঘটনা চার রকম এখানে…

Identification of Sentence Errors – একটা লাইনের পাঁচ জায়গায় আণ্ডারলাইন করা থাকবে। পাঁচ জায়গার কোনটার মধ্যে ভুল (গ্রামাটিক্যাল মিস্টেক) আছে, খুঁজে বাইর করতে হবে শার্লক স্টাইলে।

Sentence Correction – ঘটনা অনেকটা আগেরটার মতই। কিন্তু এখানে আন্ডারলাইন করা থাকবে এক জায়গাতেই। পাঁচ রকম করে ঐ আন্ডারলাইন করা জায়গাটা বলা থাকবে। কোনটা সঠিক, সেটা সিলেক্ট করতে হবে।

Editing in Context – এখানেও ঘটনা খুব একটা ভিন্ন না। এখানে একটা পুরো প্যাসেজ পড়তে হবে, প্যাসেজের মধ্যে থেকে মাঝে মাঝে কিছু লাইন বা শব্দ দেখিয়ে ওরা জানতে চাইবে, “বলেন দেখি, এটা ইউজ না করে কোনটা ইউজ করলে বেশি ভালো হইতো?”… তারপর অপশনও দিবে, আপনি খালি সিলেক্ট করবেন। এখানে sentence structure আর vocabulary এর জ্ঞান থাকা লাগে।

Essay Writing – এতক্ষণে আসছে আসল পুরুষ… থুক্কু… আসল রাইটিং। এবার প্যাসেজ লিখতে হবে একটা বিষয়ের ওপর। কী কী জিনিস আপনার essay এর মধ্যে থাকতে হবে, সেটাও ওরা বলে দেবে। সময় পাবেন ২৫ মিনিট। অতএব, ঝাঁপিয়ে পড়ুন। এটা একদম GRE এর Issue Task এর মত। তাই, Issue Task এর ডিটেইলস পড়েও ফেলুন এখানে, Analytical Writing.

SCORING PATTERN

সব মিলিয়ে ২৪০০ নাম্বারের পরীক্ষা, প্রত্যেক সেকশনে ৮০০ করে। সব মিলিয়ে মোটামুটি স্কোর বলতে 1500-1600 এবং ভালো স্কোর বলতে 1800+ বোঝায়। কোন ভার্সিটির SAT requirement কী রকম, সেটা এই ওয়েবসাইটটা থেকে দেখে নিতে পারেন আপনার পছন্দসই ইউনিভার্সিটির লিংকে ক্লিক করেই…..

খরচাপাতি

ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টদের জন্য (মানে, আমাদের জন্য) ৯১ ডলার ফী দিতে হয়।

PRACTICE MATERIAL

১) VocaBuilder – ভোকাবুলারি শেখার জন্য
২) Official SAT study guide – SAT এর ব্যাপারে প্রাথমিক সবকিছু জানার জন্য, প্র্যাকটিস করার জন্য
৩) Barron’s SAT – প্র্যাকটিসের জন্য

Vocabuilder সরাসরি বা অনলাইনে কেনার জন্য এখানে ডিটেইলস দেখুন, Get VocaBuilder. বাকী বইগুলো বাজারে পাবেন, আশা করি।

OTHERS

একাউন্ট খুলতে হবে College Board Website তে গিয়ে। Credit Card এর মাধ্যমে পেমেন্ট করতে হয়। কিভাবে করতে হয়, দেখুন এখানে – Credit Card Aid. একবার পরীক্ষা দিলে 4 টা ভার্সিটিতে ফ্রি স্কোর পাঠানো যায়।

In : SAT

About the author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked (required)

এই মাসের সেরা এজেন্সি –